ভাষাসমূহ

প্রযুক্তিগত নির্দেশিকা

সর্বোচ্চ ফিল্ম কার্যকারিতা লাভ করার জন্য সঠিক সারফেস প্রস্তুতি অত্যন্ত জরুরি। সেই কারণে ষ্টিল প্লেটের প্রাথমিক সারফেস ট্রিটমেন্ট, ফ্যাব্রিকেট করা ষ্টিলের আনুষঙ্গিক সারফেস ট্রিটমেন্ট এবং রিপেয়ার পেইন্ট প্রয়োগ বর্ণনা করা হচ্ছে। 

স্টিল প্লেটে নিম্নলিখিত সারফেস নিরাময় প্রয়োগ করতে হবে।

  • স্টিলকে পরিষ্কার কাপড়ের টুকরো বা দ্রাবকে ভেজানো ব্রাশের সাহায্যে মুছে বা ঘষে তেল বা গ্রীস তুলে ফেলতে হবে। ষ্টিলের গায়ে দৃঢ়ভাবে আটকে থাকা অবশেষকে দ্রাবকের সাহায্যে ঘষে মুছে ফেলতে হবে।
  • স্টিল সারফেসের গায়ে লেগে থাকা ক্ষয়কারী লবণ যথা ক্লোরাইড ও সালফেট পরিষ্কার জলের সাহায্যে ধুয়ে ফেলতে হবে। জল ও আর্দ্রতা মোছার জন্য শুকনো কাপড়ের টুকরোর সাহায্যে মুছে অথবা গরম বাতাস চালনা করে ষ্টিলকে শুকিয়ে নিতে হবে।
  • সকল প্রকার লোহার কুচি, মরচে, মরচের কুচি, রঙের দাগ অথবা অন্যান্য বস্তুকে গ্রিট বা স্যান্ড ব্লাস্টিং-এর দ্বারা মুক্ত করে আইএসও মান ধরে রাখতে হবে।
  • শপ প্রাইমার প্রয়োগের আগে, ধুলো, বালির অবশেষ, স্টীলের গুঁড়ো বা কাঁকর এবং অন্য সমস্ত দূষিত পদার্থ সারফেস থেকে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার বা এয়ার ব্লোয়ারের সাহায্যে পরিষ্কার করতে হবে।    

ত্রুটিপূর্ণ ও ক্ষতিগ্রস্থ জায়গাগুলিকে অবশ্যই ব্লাস্টিং অথবা পাওয়ার টুলের সাহায্যে পরিষ্কার করতে হবে। কোট প্রয়োগের আগে গ্রীস পরিষ্কার ও ধোয়ার মাধ্যমে সারফেস পরিষ্কার করা প্রয়োজন হতে পারে। সেটি করার জন্য নিম্নলিখিত ধাপগুলি পালন করুন:

  • শক্ত ফাইবার বা তারের ব্রাশ বা দুটিই ব্যবহার করে স্টিলের উপরে ব্রাশ করে ক্ষয়কারী লবণ, খড়ি, দাগ, মাটি অথবা অন্যান্য ময়লা ও বহির্ভূত বস্তুকে মুছে ফেলুন।
  • দ্রাবক ব্যবহার করে জমে থাকা তেল বা গ্রীস অবশ্যই মুছে ফেলতে হবে।
  • ব্লাস্ট ক্লিনার বা পাওয়ার টুল ব্যবহার করে ঢালাই ধাতুর গাদ, ঢালাই ধাতুর টুকরো, ঢালাই ধাতুর ধোঁয়ার অবশেষ, ঢালাই অঞ্চলে মরচে ধরা ও ক্ষতিগ্রস্থ পেইন্ট ফিল্ম পরিষ্কার করুন।
  • একটি ভ্যাকিউম ক্লিনার ব্যবহার করে ধুলো, বালির অবশেষ ও অন্যান্য ময়লা পরিষ্কার করুন।        

সারফেস প্রস্তুতির মান পেইন্ট ফিল্মকে গভীরভাবে প্রভাবিত করে। ফলে রঙ করার আগে, যথাযথ প্রয়োগ পদ্ধতি এবং সারফেস প্রস্তুতির মান-এই দুটিই নির্ণয় করা জরুরি। কিছু কার্যকারণের সংক্ষিপ্ত বিবরণ দেওয়া হল যে গুলি প্রাক-নিরাময় পদ্ধতির পছন্দকে প্রভাবিত করতে পারে:

সারফেসের ভৌত ও রাসায়নিক ভাবে পরিচ্ছন্নতা

  • সারফেসের অবস্থা
  • সারফেসের প্রোফাইল
  • পেইণ্টের চরিত্র
  • নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়
  • পরিবেশগত বাধ্যবাধকতা
  • উপলব্ধ যন্ত্রপাতির প্রকার
  • আগের নিরাময় পদ্ধতির ধরন

প্রাক-নিরাময় ও পেইন্ট সিস্টেমের প্রকার চূড়ান্ত করার সময় বিপুল পরিমাণ খরচের দিকটি মাথায় রাখা সব সময়ই আবশ্যক।      

প্রণালী  ফলাফল
ব্লাস্ট দিয়ে পরিষ্কার আদর্শ
যান্ত্রিক তার-ব্রাশিং গ্রহণযোগ্য
যান্ত্রিক ডিস্ক-স্যান্ডিং গ্রহণযোগ্য
সূচ চিপিং ভালো
যান্ত্রিক স্ক্রেপিং ভালো
হাত দিয়ে ব্রাশ করা খারাপ
হাত দিয়ে স্ক্রেপ করা  খারাপ
ওয়াটার জেটের মাধ্যমে পরিষ্কার গ্রহণযোগ্য
   
পদ্ধতি (এসএসপিসি) (এনএসিই) (আইএসও) বিএস:৪২৩২-৬৭ 
সলভেন্ট ক্লিনিং এসএসপিসি-এসপি ১ - - -
হ্যান্ড টুল ক্লিনিং এসএসপিসি-এসপি ২  - এসটি-২ (আন্দাজমতো)   -
পাওয়ার টুল ক্লিনিং এসএসপিসি-এসপি ৩  - - -
ফেম ক্লিনিং এসএসপিসি-এসপি ৪  - - -
হোয়াইট মেটাল ব্লাস্টিং এসএসপিসি-এসপি ৫  এনএসিই ১ এসএ-৩ ১ নং মান
বাণিজ্যিক ব্লাস্টিং এসএসপিসি-এসপি ৬  এনএসিই ২ এসএ-২  ৩ নং মান
ব্রাশ অফ ব্লাস্টিং এসএসপিসি-এসপি ৭  এনএসিই ৪ এসএ-২  -
পিকলিং এসএসপিসি-এসপি ৮  - - -
ওয়েদারিং ও ব্লাস্টিং এসএসপিসি-এসপি ৯  - - -
নিয়ার হোয়াইট মেটাল ব্লাস্টিং এসএসপিসি-এসপি ১০  এনএসিই ২ এসএ-৩  ২ নং মান 

 

*

দ্য স্টিল স্ট্রাকচার পেইন্টিং কাউন্সিল নির্দেশিকা

দ্য ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অফ কোরোশন ইঞ্জিনিয়ারিং নির্দেশিকা   

সুইডিশ স্ট্যান্ডার্ড

ব্রিটিশ স্ট্যান্ডার্ড নির্দেশিকা 

অ্যালুমিনিয়াম/টিন/তামা/ পিতল এবং অন্যান্য লৌহবর্জিত ধাতু

  • সারফেস শুকনো ও পরিষ্কার হওয়া আবশ্যক।
  • যেকোনও তেল/গ্রীস মুছে ফেলা বাঞ্ছনীয়।
  • পরিচ্ছন্ন সারফেসকে কম-চাপযুক্ত ও অধাতব অ্যাব্রেসিভ দ্বারা ঘষতে হবে, তারপর ওয়াশ প্রাইমার কোট দ্বারা প্রাইম করতে হবে।

গ্যালাভানাইজ করা ষ্টিল:

  • যেকোনও তেল/গ্রীস মুছে ফেলতে হবে।
  • যেকোনও প্রকার হোয়াইট জিঙ্ক কোরোশন পণ্যকে উচ্চ চাপযুক্ত পরিশুদ্ধ জল দ্বারা ধুয়ে ফেলতে হবে।
  • জলের সাহায্যে দ্রবণীয় জিঙ্ক লবণ ধুয়ে ফেলা বাঞ্ছনীয়। 

স্টেইনলেস ষ্টিল:

  • স্টেইনলেস ষ্টিলের সারফেসে কোটিং এর আগে কোনও প্রকার বিশেষ পূর্বনিরাময় প্রয়োজন হয় না। এই সারফেস গুলিকে সকল প্রকার তেল, গ্রীস, ময়লা বা অন্যান্য বাইরের ধুলো ময়লা থেকে মুক্ত করতে হবে।
  • স্টেইনলেস স্টিলের ক্ষেত্রে কোটিং-এর ভালো সংযুক্তি নিশ্চিত করতে সারফেস প্রোফাইলকে উন্নত করা বঞ্ছনীয়।
  • অধিকাংশ কোটিং সিস্টেমের ক্ষেত্রে প্রোফাইল ঘনত্ব ১.৫ থেকে ৩.০ মিলস রাখা উচিৎ। 

কংক্রিট ও ইমারতি সারফেস:

নতুন কংক্রিট সারফেস:

  • কোটিং-এর আগে অন্তত ৩০ দিন নিরাময়ের জন্য দেওয়া আবশ্যক। 
  • কংক্রিট/ইমারতের আর্দ্রতার পরিমাণ ৬% এর কম হওয়া উচিৎ।
  • বিস্তৃত জায়গা এবং ব্যাপক আকারে অনাবৃত অবস্থার ক্ষেত্রে, সারফেসকে মৃদু ব্লাস্টিং দ্বারা প্রস্তুত করতে হবে। অপেক্ষাকৃত কম সংকটজনক স্থান যেখানে ব্লাস্টিংয়ের প্রয়োজন নেই, সেই সব স্থানে লায়াটেন্স মুক্ত করার জন্য ওয়্যার ব্রাশিং করার পর পাতলা হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড দ্বারা নিরাময় করা যেতে পারে। 
  • প্রাইমার প্রয়োগের পূর্বে সারফেসকে পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে শুকিয়ে নিতে হবে।       

পুরনো কংক্রিট সারফেস:

  • সারফেস দূষণকারী গ্রীস, তেল ইত্যাদি দ্রাবকের দ্বারা অথবা ১০% ক্ষারীয় দ্রবণের সাহায্যে মুছে ফেলুন।
  • সারফেসকে মৃদু ব্লাস্টিং দ্বারা প্রস্তুত করা বাঞ্ছনীয়। ব্লাস্টিং উপযুক্ত না হলে সেক্ষেত্রে ভালো প্রোফাইল লাভ করার জন্য পাতলা করা হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড দিয়ে উপরের স্তরে এচিং করুন।
  • অ্যাসিড ও দূষণ সৃষ্টিকারী বস্তু জলের সাহায্যে ধুয়ে ফেলুন।
  • অ্যাসিড দ্রবণ যেন সারফেস বা খাঁজে জমে না থাকে তা নিশ্চিত করুন।
  • প্রাইমার প্রয়োগ করার পূর্বে সারফেসকে পুঙ্খানুপুঙú#2509;খ ভাবে শুকিয়ে নিন।        

কাঠের সারফেস:

  • এক বা একাধিক রাসায়নিক দ্বারা পরিষ্কার করে ময়লা/গ্রীস/তেল মুছে ফেলুন।
  • গিঁট, পেরেক, ছিদ্র, ফাটল ইত্যাদি উপযুক্ত ফিলার মিশ্রণ দ্বারা বুজিয়ে ফেলুন, আলগা আঠালো কোটিং থাকলে ঘষে তুলে ফেলুন, এবং মসৃণ সারফেসে স্যান্ড করুন। 
  • খড়িওঠা সারফেসকে ধুয়ে পরিষ্কার করুন এবং কোটিং-এর পূর্বে ভালো করে শুকিয়ে নিন।  

SEND US YOUR QUERIES

আপনার প্রশ্ন পাঠান